(বিএনপি কমিউনিকেশনস)   — বিএনপি চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে রাজধানীসহ সারাদেশে বিক্ষোভ করেছে জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি।

বিক্ষোভ কর্মসূচিতে দেশের বিভিন্ন স্থানে পুলিশের বাধা দান, লাঠিচার্জ-টিয়ারসেল নিক্ষেপসহ গুলি ও গ্রেফতারের ঘটনা ঘটেছে। এসব ঘটনায় বিএনপিসহ দলটির অঙ্গসংগঠনের দুই শতাধিক নেতাকর্মী আহত হয়েছেন বলে দাবি করেছে বিএনপি। একই সময়ে অর্ধশতাধিক নেতাকর্মীকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে বলেও অভিযোগ করা হয়েছে। রোববার, অক্টোবার ৮, কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে দুই বছর আগে বাসে পেট্রোল বোমা মেরে আটজন পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় বিস্ফোরক আইনের ষড়যন্ত্রমূলক মামলায় কুমিল্লার জেলা ও দায়রা জজ আদালত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ  আসামীদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে। দলটির চেয়ারপারসনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে বিক্ষোভ কর্মসূচি ঘোষণা করে বিএনপি।

ঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ি বুধবার, অক্টোবর ১১, সকাল থেকেই রাজধানী বিভিন্ন থানায় থানায়, রাজধানীর বাইরে গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জ, নরসিংদী, খুলনা, টাঙ্গাইল, মুন্সিগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ, ময়মনসিংহ, রংপুর, গাইবান্ধা, বগুড়া, সিরাজগঞ্জ, রাজশাহী, নাটোর, বাগেরহাট, চট্টগ্রাম, নোয়াখালি, ফেনী, কুমিল্লা, লক্ষীপুর, সিলেট, বরিশাল ও যশোরে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছে দলটির নেতাকর্মীরা। এসব বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশের বাধা দেওয়া, নেতাকর্মীদের উপর পুলিশের লাঠিচার্জ, টিয়ারশেল নিক্ষেপ এবং কোথাও কোথাও গুলি ছুড়েছে বলেও অভিযোগ করেছে বিএনপি। টাঙ্গাইল, গাইবান্ধা, রাজশাহীতে পুলিশের বাধার মুখেই মহানগরে বিক্ষোভ করেছে বিএনপি।

এদিকে বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলায় গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ বিএনপি থানায় থানায় বিক্ষোভ মিছিল করেছে। সকাল ১০টায় খিলক্ষেত এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল বের করে ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপি। মিছিলটি খিলক্ষেত ৩০০ ফিট থেকে বের হয়ে বসুন্ধরা কনভেনশন হল হয়ে খিলক্ষেত ফ্লাইওভারের নীচে এসে শেষ হয়। মিছিলে ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক আহসান উল্লাহ হাসান, সিনিয়র সহ-সভাপতি মুন্সি বজলুল বাসিদ আঞ্জু, সহ-সভাপতি সাহিনুল আলম মারফত, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান আনোয়ার, যুগ্ম সম্পাদক এ জি এম সামসুল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আক্তার হোসেন, দফতর সম্পাদক এ বি এম এ রাজ্জাকসহ দলের নেতাকর্মীরা অংশ নেন।

বাড্ডা থানা বিএনপি’র একটি মিছিল ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপি’র সহ-সাধারণ সম্পাদক তহিরুল ইসলাম তুহিনের নেতৃত্বে বাড্ডা লিংক রোডে অনুষ্ঠিত হয়। পল্লবী থানা বিএনপি’র মিছিলটি ১১ নং কবরস্থানের সামনে থেকে বের হয়ে অরিজিনাল ১০ নং পর্যন্ত গেলে পুলিশ মিছিলে বাধা দেয়। ভাষানটেক থানার একটি মিছিল কচুক্ষেত বাজার এর সামনে থেকে বের হয়ে তামান্না কমপ্লেক্সের সামনে গেলে পুলিশী বাধায় মিছিলটি ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়। রমনা থানা বিএনপি’র একটি মিছিল মগবাজার রোড থেকে ওয়ারলেস মোড়ে গিয়ে শেষ হয়। রুপনগর থানা বিএনপি’র একটি মিছিল আরামবাগ থেকে শুরু হয়ে রুপনগর আবাসিক এ গিয়ে শেষ হয়। মিরপুর থানা বিএনপি’র একটি মিছিল মিরপুর থানার পিছন থেকে শুরু হয়ে ১০ নম্বর গোলচক্করে গিয়ে শেষ হয়। তেজগাঁও থানা বিএনপি’র একটি মিছিল কানন বাজার থেকে শুরু হয়ে হলিক্রস কলেজে গিয়ে শেষ হয়। শেরেবাংলা নগর থানা বিএনপি’র একটি মিছিল স্কয়ার হাসপাতালের সামনে থেকে শুরু হয়ে সমরিতা হাসপাতালের সামনে গিয়ে শেষ হয়। তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানা বিএনপি’র একটি মিছিল তেজগাঁও ট্রাক স্ট্যান্ড থেকে শুরু হলে পুলিশী বাধায় তা পন্ড হয়ে যায়। খিলক্ষেত থানা বিএনপি’র একটি মিছিল এস এম ফজলুল হক ফজলু এবং স্বপন এর নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। রামপুরা থানা বিএনপি’র একটি মিছিল ফয়েজ আহমেদ ফরু ও মিহিরের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। বিমানবন্দর থানা বিএনপি’র একটি মিছিল মোস্তাফিজুর রহমান সেগুন, মো: নাসির ও আলাউদ্দিন সরকার টিপুর নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। উত্তরা পশ্চিম থানার বিএনপি’র একটি মিছিল মো: আফাজ এর নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলটি পুলিশী বাধায় পন্ড হয়ে যায়। আরো একটি মিছিল হাজী দুলাল এর নেতৃত্বে শুরু হয়ে কিছুদুর অগ্রসর হলে পুলিশী বাধায় মিছিলটি পন্ড হয়ে যায়। উত্তরা পূর্ব থানা বিএনপি’র একটি মিছিল হেলাল তালুকদারের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। কাফরুল থানা বিএনপি’র একটি মিছিল ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপি’র সহ-সাধারণ সম্পাদক মো: আশরাফুজ্জাহান জাহানের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। উত্তরা পূর্ব থানার আরো একটি মিছিল এম কফিল উদ্দিন এর নেতৃত্বে শুরু হলে পুলিশী বাধার মুখে তা পন্ড হয়ে যায়। মোহাম্মদপুর থানা বিএনপি’র একটি মিছিল সোহেল রহমানের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। দক্ষিণ খান থানা বিএনপি’র একটি মিছিল দেওয়ান মো: নাজিমউদ্দিনের নেতৃত্বে শুরু হয়। তেজগাঁও থানা বিএনপি’র একটি মিছিল শাহীনবাগ থেকে শাহীন স্কুলের সামনে গিয়ে পুলিশী বাধায় শেষ হয়। উত্তরা পশ্চিম থানা বিএনপি’র একটি মিছিল মো: মোস্তফা কামাল হৃদয়ের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারীর প্রতিবাদে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির উদ্যোগে মহানগরীর থানায় থানায় বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করা হয়। সকালে রাজধানীর মুক্তাঙ্গন থেকে শাহবাগ থানা বিএনপির একটি মিছিল শুরু হয়ে জিরো পয়েন্ট হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। মহানগর বিএনপির নেতা হাজী জাহাঙ্গীর আলম পাটোয়ারীর নেতৃত্বে নিউমার্কেট থানার একটি বিক্ষোভ মিছিল মাল্টিপার্পাস শপিং সেন্টার হতে শুরু হয়ে এ্যালিফন্ট রোড, বাটা সিগনালে গিয়ে শেষ হয়। মহানগর বিএনপির নেতা আ ন ম সাইফুল ইসলামের নেতৃত্বে একটি বিক্ষোভ মিছিল ধোলাইপাড় হতে শুরু হয়ে জুরাইন নতুন রাস্তা গিয়ে শেষ হয়। কামরাঙ্গীরচর থানা বিএনপির নেতা হাজী মনির হোসেন ও হাজী রফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে একটি বিক্ষোভ মিছিল পূর্ব রসুলপুর বেড়ীবাধ থেকে শুরু করে কোম্পানীঘাট গিয়ে শেষ হয়। কদমতলী থানা বিএনপির উদ্যোগে একটি বিক্ষোভ মিছিল জুরাইন গীত সিনেমা হল থেকে শুরু হয়ে খন্দকার রোড পর্যন্ত গিয়ে শেষ হয়। সূত্রাপুর থানা বিএনপির উদ্যোগে একটি বিক্ষোভ মিছিল রায় সাহেব বাজার থেকে শুরু করে তাঁতী বাজার মোড়ে গিয়ে শেষ হয়। রমনা থানা বিএনপির উদ্যোগে একটি বিক্ষোভ মিছিল মালিবাগ রেলগেট থেকে শুরু করে মৌচাক মার্কেট গিয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। ডেমরা থানার একটি বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। মোয়াজ্জেম আলী স্কুল থেকে একটি মিছিল বের হয়ে স্টাফ কোয়ার্টারে গিয়ে শেষ হয়। মহানগর বিএনপির নেতা মোশারফর হোসেন খোকনের নেতৃত্বে একটি মিছিল লালবাগ থানার ছাপড়া মসজিদ থেকে লালবাগ চৌরাস্তা গিয়ে শেষ হয়। মতিঝিল থানার একটি বিক্ষোভ মিছিল নান্ন ও মাহবুবের নেতৃত্বে আল হেলাল হোটেলের সামনে থেকে শুরু হয়ে ফকিরাপুল বাজার গিয়ে শেষ হয়। গোলাম হোসেন কমিশনারের নেতৃত্বে সবুজবাগ থানা বিএনপির উদ্যোগে একটি মিছিল মাদারটেক টেম্পোস্ট্যান্ড থেকে শুরু হয়ে ইস্টার্ন হাউজিং গেট বনশ্রী গিয়ে শেষ হয়। মহানগর বিএনপির নেতা সিরাজুল ইসলাম সিরাজের নেতৃত্বে কলাবাগান বিএনপির একটি মিছিল বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। হাজারীবাগ থানা বিএনপির উদ্যোগে একটি বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। হাজী মোঃ টিপু সুলতানের নেতৃত্বে পোস্তা হতে চকবাজার পর্যন্ত একটি বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। ওয়ারী থানা বিএনপির একটি বিক্ষোভ মিছিল নবাবপুর ডিসেন্টের সামনে থেকে শুরু হয়ে মদনপাল লেন, কাপ্তানবাজার হয়ে তাহেরবাগ গিয়ে শেষ হয়। মুহিত জামান রিক্তর নেতৃত্বে পল্টন থানা বিএনপির একটি বিক্ষোভ মিছিল কালভার্ট রোড এলাকায় প্রদক্ষিণ করে হাউজ বিল্ডিং-এ গিয়ে শেষ হয়। ফজলে রুবায়েত পাপ্পুর নেতৃত্বে শাহজাহানপুর বিএনপি উত্তর শাহজাহানপুর থেকে খিলগাও রেলগেটে গিয়ে শেষ হয়। বংশাল থানা বিএনপির একটি মিছিল ব্যান্ডপার্টি গলি থেকে শুরু হয়ে নর্থসাউথ রোডের স্যানিটারী মার্কেটে গিয়ে শেষ হয়।

বিএনপির কর্মসূচি হামলা গ্রেফতারের ঘটনায় নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি গ্রেফতার নেতাকর্মীদের অবিলম্বে নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেন।

রাজশাহী  

সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার নামে ষড়যন্ত্রমূলক মামলায় গ্রেফতারী পরোয়ানা জারীর প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ পুলিশী বাঁধায় শেষ হয়। সকালে মহানগর বিএনপি কার্যালয়ের সামনে থেকে বিএনপির নেতাকর্মীরা মিছিল বের করার চেষ্টা করলে পুলিশি বাধার মুখে পড়ে। এরপর তারা সেখানেই সমাবেশ করে। সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন, রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র জাতীয় নির্বাহী কমিটির বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক ও মহানগর বিএনপির সভাপতি মোঃ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল। প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির চেয়ারপার্সনের অন্যতম উপদেষ্টা, রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র ও এম.পি মিজানুর রহমান মিনু।

সভায় বক্তব্য দেন, বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির ত্রাণ ও পূনর্বাসন বিষয়ক সহ-সম্পাদক ও রাজশাহী মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এ্যাডঃ শফিকুল হক মিলন সহ নেতৃবৃন্দ।

নোয়াখালী

বিএনপির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াসহ ১৪৮জন নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে বিএনপি নোয়াখালী জেলা শহরে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। এসময় পুলিশ কয়েক রাউন্ড শর্টগানের গুলি ছুঁড়ে। সংঘর্ষে ৩ পুলিশ সদস্যসহ অন্তত ২০জন আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে ১১ জনকে আটক করেছে পুলিশ। বুধবার সকাল ১১টার দিকে শহরের রশিদ কলোনী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আটককৃতরা হলো, জেলা যুবদলের সভাপতি মাহবুল আলম আলো ও সদর থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ভিপি জসীম উদ্দিন’সহ ১১ জন।

নেত্রকোনা

বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে নেত্রকোনা জেলা বিএনপির উদ্যোগে গতকাল বুধবার নেত্রকোনায় বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ১০টায় জেলা শহরের ছোটবাজারস্থ দলীয় কার্যালয়ে জেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আশরাফ উদ্দিন খানের সভাপতিত্বে যুগ্ম সম্পাদক সালাহ্উদ্দিন খান মিল্কী’র পরিচালনায় বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্য নির্বাহী কমিটির সদস্য জেলা মহিলা দলের আহবায়ক এডভোকেট ড. আরিফা জেসমিন নাহীন, জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক মশিউর রহমান মশু, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম মনিরুজ্জামান দুদু, কোষাধ্যক্ষ এস এম মুসা, প্রচার সম্পাদক সেলিম আহমেদ, কৃষি বিষয়ক সহ সম্পাদক সালাহ্ উদ্দিন আহমেদ নওয়াব, যুব বিষয়ক সহ সম্পাদক কামরুল হক প্রমুখ।

নারায়ণগঞ্জ

বিএনপি চেয়ারপারসন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে কুমিল্লায় গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে  বুধবার সকাল ১০ টায় নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিক্ষোভ সমাবেশে নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সভাপতি ও সাবেক এমপি অ্যাডভোকেট আবুল কালাম বলেন, দেশের বিচার ব্যবস্থা থেকে জনগণ আস্থা হারিয়ে ফেলেছে। এ সময় আর বক্তব্য রাখেন, মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট জাকির হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সবুর খান সেন্টু, অ্যাডভোকেট আবু আল ইউসুফ খান টিপ, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আওলাদ হোসেন, মনিররুল আলম সজল, কোষাদক্ষ মনিরুজ্জামান মনির, মহানগর শ্রমিক দলের আহŸায়ক আসলাম, সদস্য সচিব আলী আজগর, যগ্ম-আহবায়ক মনির মল্লিক, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা মাকিদ মোস্তাকিম শিপলু।

নরসিংদী

বিএনপির চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র মিথ্যা মামলার গ্রেফতারী পরোয়ানার প্রতিবাদে নরসিংদী জেলা বিএনপি বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশের আয়োজন করে। খায়রুল কবির খোকনের নেতৃত্বে চিনিশপুর থেকে বিক্ষোভ মিছিল করে জেলখানা মোড়ের দিকে যাবার পথে পুলিশ বাধা দেয়। সেখানেই তারা সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করে। কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম-সম্পাদক ও নরসিংদী জেলা বিএনপির সভাপতি খায়রুর কবির খোকনের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন নরসিংদী জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি সুলতান উদ্দিন মোল্লা, শহর বিএনপির সভাপতি গোলাম কবির কামাল প্রমুখ।

ফরিদপুর

ফরিদপুরে জেলা বিএনপির উদ্যোগে বেগম খালেদা জিয়ার গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে বুধবার বিকেলে এক বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বিক্ষোভ মিছিলটি জনতা ব্যাংকের মোড় থেকে ফরিদপুর প্রেসক্লাবের সামনে গেলে পুলিশের বাধার মুখে পন্ড হয়ে যায়। প্রতিবাদ সমাবেশে বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার গ্রেপ্তারী পরোয়ানা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শহীদ পারভেজ, জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জুলফিকার হোসেন জুয়েল, আইন বিষয়ক সম্পাদক এ্যাডভোকেট জসীম উদ্দিন মৃধা, বিএনপির সিনিয়র নেতা খন্দকার ফজলুল হক টুলু, স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা এ্যাড. হাবিবুর রহমান হাফিজ, ছাত্রদলের সহ-সভাপতি জাহাঙ্গীর হোসেন, বিএনপির অন্যতম নেতা ফাত্তাউল ইসলাম ফাত্তা প্রমুখ। অপরদিকে ফরিদপুরে বিএনপির মিছিলে পুলিশি হামলার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন ফরিদপুরের কৃতি সন্তান কেন্দ্রীয় যুবদলের নেতা মাহবুবুল হাসান পিংকু ও ফরিদপুর জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক আফজাল হোসেন খান পলাশ।

গাইবান্ধা

বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানার প্রতিবাদ এবং প্রধান বিচারপতিকে জোরপূর্বক ছুটিতে পাঠানোর প্রতিবাদে বুধবার কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশহিসেবে গাইবান্ধায় বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম গাইবান্ধা জেলা ইউনিট এই কর্মসূচী পালন করে। বিক্ষোভ শেষে আইনজীবী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. মিজানুর রহমান মিজানের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন অ্যাড. আব্দুল মজিদ, আকতারুজ্জামান বাদশা, রফিকুল ইসলাম বুলু, মিজানুর রহমান বাবু, আবু বকর সিদ্দিক, মঞ্জুর মোর্শেদ বাবু, জাহাঙ্গীর হোসেন, শাহনেওয়াজ প্রমুখ।

গাজীপুর

বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার গ্রেফতারী পরোয়ানার প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে গাজীপুরে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে বিএনপি। বুধবার সকালে জেলা বিএনপির কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক শিল্পপতি মো: সোহরাব উদ্দিন। বিএনপি নেতা মীর হালীমুজ্জামান ননীর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপি নেতা সাখাওয়াৎ হোসেন সবুজ, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সামাদ মোল্লা, মেহেদী হাসান এলিচ, হান্নান মিয়া হান্নু, জয়নাল আবেদীন তালুকদার, সাখাওয়াৎ হোসেন সেলিম, কুতুব উদ্দিন, যুবদল নেতা প্রভাষক বশির উদ্দিন, সাবেক ছাত্রনেতা হুমায়ুন কবীর রাজু, নাহীন আহমেদ মমতাজী, সেলিম রানা, জাহাঙ্গীর হাজারী প্রমুখ।

কেরানীগঞ্জ

ঢাকার মডেল উপজেলা বিএনপির উদ্যোগে বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানার প্রতিবাদে বুধবার বিকেলে বরিশুরস্থ কালিন্দী ইউনিয়ন বিএনপির কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ অনষ্ঠিত হয়েছে। কেরানীগঞ্জ মডেল উপজেলা বিএনপির সভাপতি শরীফ মোহাম্মদ মহিউদ্দিনের সভাপতিত্বে এই বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন মডেল উপজেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক হাসমত উল্লাহ নবী, সহসাধারণ সম্পাদক হাজী মোঃ খোকন, মডেল উপজেলা যুবদলের সভাপতি মাসুদুর রহমান মাসুদ,ছাত্রদলের সভাপতি শাহরিয়ার রাসেল শুভ্র ও স্বেচ্ছাসেবকদলের সভাপতি মোঃ ওয়ালীউল্লাহ সেলিমসহ দলের অন্যান্য অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

মুন্সীগঞ্জ

বিএনপি চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলায় গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে বুধবার সকালে মুন্সিগঞ্জ জেলা বিএনপির বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিপুল সংখ্যক পুলিশের উপস্থিতিতে মুন্সিগঞ্জ সুপার মার্কেট সংলগ্ন বিএনপি’ নিজস্ব কার্যাললের সামনে এই বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্টিত হয়। সমাবেশ শেষে জেলা বি এন পি সভাপতি ও সাবেক মন্ত্রী আ: হাই ও সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান রতনের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়ে পুরাতন বাসষ্ট্যান্ড এলাকা ঘুরে এসে সুপার মার্কেট স্বাধীনতা চত্বরে এসে শেষ হয়। সমাবেশে অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা বি,এনপি নেতা মুক্তিযোদ্বা আ: কুদ্দুস ধীরেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আতোয়ার হোসেন বাবুল, জেলা আইনজীবী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট তোতা মিয়া, শহর বি,এন,পি সভাপতি সাবেক মেয়র কে,এম ইরাদত মানু, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক তারেক কাশেম খান মুকুল প্রমুখ।

নীলফামারী

বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারীর প্রতিবাদে নীলফামারীতে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে জেলা ছাত্রদল।  বুধবার দুপুরে শহরের পৌরবাজারস্থ দলীয় কার্যালয় চত্বরে ওই প্রতিবাদ সভাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। ছাত্রদলের জেলা কমিটির সভাপতি সালেকিন আহমেদ সজিবের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য দেন ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আব্দুস সালাম বাবলা, জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মারুফ পারভেজ প্রিন্স, সাংগঠনিক সম্পাদক সুহৃদ হোসেন, সাবেক ছাত্রদলের আহবায়ক মোর্শেদ আযম।

সোনারগাঁও

জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহ্বায়ক মোঃ সালাউদ্দিন সালুকে প্রধান আসামী করে সোনারগাঁওয়ে বিএনপি শতাধিক নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে নাশকতার মামলা করছে সোনারগাঁও থানা পুলিশ। বুধবার বিকেলে সোনারগাঁও থানার সহকারী পুলিশ পরিদর্শক মনিরুজ্জামান বাদী হয়ে এ মামলাটি করে। মামলার এজাহারে ৯৭ জনের নাম উল্লেখ করার পাশাপাশি প্রায় ৬০জনকে অজ্ঞাত আসামী করা হয়েছে।

টাঙ্গাইল

বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে বুধবার সকালে জেলা বিএনপির উদ্যোগে শহরের বিভিন্ন স্থান থেকে খন্ড খন্ড মিছিল এসে ভিক্টোরিয়া রোডের দলীয় কার্যালয় এসে সমাবেত হতে থাকে। পরে সেখান থেকে একটি মিছিল বের হতে চাইলে পথিমধ্যে বাধাদেয় পুলিশ। বাধার সম্মুখিন হয়ে সেখানেই সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করে বিএনপি নেতৃবৃন্দ। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, জেলা বিএনপির সভাপতি কৃষিবিদ শামসুল আলম তোফা, সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট ফরহাদ ইকবাল। এছাড়াও সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুর রহমান শফিক, প্রচার সম্পাদক একেএম মনিরুল হক মনির, জেলা স্বেচ্ছা সেবকদলের আহবায়ক জিয়াউল হক শাহীনসহ স্বেচ্ছাসেবকদল, যুবদল, শ্রমিকদল, ছাত্রদল ও বিএনপি’র অঙ্গ-সংগঠনের সকল পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন।