(বিএনপি কমিউনিকেশন) — বাংলা নববর্ষ ১৪২৫ উপলক্ষে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর শুক্রবার, এপিল ১৩, সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো বাণীতে বলেছেন  —  উৎসবের দিনে জনগণের প্রিয় নেত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া আমাদের পাশে নেই। প্রতিহিংসামূলকভাবে সাজানো মামলায় তাঁকে কারাবন্দী করে রাখা হয়েছে। জনগণকে সাথে নিয়ে দেশনেত্রীকে কারামুক্ত করে তাঁর নেতৃত্বে আমরা আবারও মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার এবং আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে এগিয়ে যেতে বদ্ধপরিকর।

বিএনপি মহাসচিব এর বাণীর পূর্ণপাঠ নিচে দেয়া হলো  — 

বাণী

”আজ পহেলা বৈশাখ ১৪২৫। বাংলা সনের প্রথম দিন। নববর্ষের প্রথম প্রভাতে আমাদের অগণিত সমর্থক, শুভানুধ্যায়ী ও দেশবাসীকে জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। বাংলা নববর্ষ আমাদের জাতীয় জীবনের এক উজ্জল আনন্দময় উৎসব। এই উৎসব সুপ্রাচীন ঐতিহ্যের অধিকারী। পহেলা বৈশাখ থেকেই শুরু হয় নতুন বছরকে বরণ করে নেয়ার আকুলতা। নতুন বছর মানেই অতীতের সকল ব্যর্থতা, জ্বরাজীর্ণতা পেছনে ফেলে নতুন উদ্দীপনা ও উৎসাহে সুন্দর সমৃদ্ধ আগামীর বিনির্মাণে এগিয়ে যাওয়া।

নানা দুর্যোগ-দুর্বিপাকের মধ্য দিয়ে আমাদের পালন করতে হচ্ছে প্রিয় বাংলা নববর্ষ। ফেলে আসা বছরের দূর্যোগ, দুর্বিপাক কাটিয়ে আমরা নতুন বছরে এগিয়ে যাওয়ার সোনালী সম্ভাবনা দেখতে পাবো বলে কামনা করি। বর্তমান দু:সময় ও নৈরাজ্যের অভিঘাত সত্ত্বেও আমাদের শান্তি ও সহাবস্থান ফিরিয়ে আনতে হবে। বিচ্ছেদ ও বিভাজন দুর করে ১লা বৈশাখের উৎসবের প্রাঙ্গন ভরে উঠুক পারস্পরিক শুভেচ্ছায়। এই উৎসবের দিনে জনগণের প্রিয় নেত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া আমাদের পাশে নেই। প্রতিহিংসামূলকভাবে সাজানো মামলায় তাঁকে কারাবন্দী করে রাখা হয়েছে। জনগণকে সাথে নিয়ে দেশনেত্রীকে কারামুক্ত করে তাঁর নেতৃত্বে আমরা আবারও মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার এবং আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে এগিয়ে যেতে বদ্ধপরিকর। ১৪২৫ বাংলা সনের প্রথম দিনের নতুন আলোতে মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামীনের নিকট কায়মনোবাক্যে দেশের সকল মানুষের সুখ ও শান্তির জন্য প্রার্থনা করি।

নববর্ষের এই নতুন সকালে মহান আল্লাহর কাছে সকলের ব্যক্তিগত, পারিবারিক তথা জাতীয় সকল পর্যায়ে সুখ ও শান্তি কামনা করি।

১৪২৫ বাংলা সনের নতুন প্রভাতের প্রথম আলোতে আমি দেশবাসীকে আবারও জানাই শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।

শুভ নববর্ষ।”