(বিএনপি কমিউনিকেশন) —  বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপার্সন তারেক রহমান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় স্বাধীনতা-গণতন্ত্র-আইনের শাসন রক্ষায় জাতীয় ঐক্যের ডাক দিয়েছেন। তিনি দেশের সকল রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দকে এক মঞ্চে অবস্থান নেয়ার আন্তরিক ও ঐকান্তিক আহ্বান জানান। জাতীয় ঐক্যের স্বার্থে অতীতের সব ভুল ও মতপার্থক্য পাশকাটিয়ে বাংলাদেশকে রক্ষার আহ্ববান জানান তিনি।

তিনি আরো বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সময়, গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার আন্দোলনের সময়ে ও সরকারে থাকা অবস্থায় দেশের বিজ্ঞ রাজনীতিকবৃন্দ যেভাবে অবদান রেখে গিয়েছেন, ঠিক সেইভাবে বর্তমান অবৈধ ও স্বৈরাচার সরকারের হাত থেকে প্রিয় দেশকে বাঁচাতে তাঁদেরকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

দলের নেতা-কর্মী-সমর্থকদেরকেও ইস্পাত কঠিন ঐক্য অটুট রেখে দেশের জনগণের সাথে নিবিড় সম্পর্ক গড়ে তোলার ঐকান্তিক আহ্বান জানান বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান । জনগণকে সাথে নিয়েই অবৈধ সরকারের পতন ঘটাতে হবে অভিমত দেন তিনি।

রোববার, জুন ১০, ২০১৮, যুক্তরাজ্য বিএনপি কর্তৃক লন্ডনের রয়্যাল রিজেন্সী অডিটোরিয়ামে ইফতার এবং মিথ্যা মামলায় কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সুস্থতা এবং মুক্তির জন্য বিশেষ দোয়া মাহফিলে এই আহ্বান জানান তিনি।  

এতে আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

তারেক রহমান বলেন, রাজনীতি জীবনের গত ৩৭ বছর ধরে ‘গণতন্ত্রের মা’ বেগম জিয়া জনগণের সাথেই পবিত্র রমজান ও ঈদ পালন করেছেন। কিন্তু ষড়যন্ত্রমূলক কারাবন্দিত্বের কারণে তিনি আজ জনগণের সাথে থাকতে পারছেন না। 

জনগণকে সাথে নিয়ে জাতীয় নেতৃবৃন্দের নেতৃত্বে বাংলাদেশে গণতন্ত্র, অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।