(বিএনপি কমিউনিকেশন) — বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু বলেছেন, ‘রাজশাহী সিটি করপোরেশন (রাসিক) নির্বাচনকে ঘিরে আমাদের সামনে তিনটি পথ খোলা। এক, আগামী ৩০ জুলাই রাজশাহী সিটি করপোরেশন নির্বাচনে হয় আমরা জীবন দেব, তবু ভোটকে রক্ষা করব। দুই, অথবা আমরা কারাগারে যাব। তিন, তা না হলে আমরা বীরের বেশে মুক্ত হয়ে আমাদের প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলকে ধানের শীষে ভোট দিয়ে খালেদা জিয়াকে মেয়র উপহার দেব।’

সোমবার, জুলাই ২, বিকেলে রাজশাহী নগরীর সাহেব বাজার জিরো পয়েন্ট সংলগ্ন মুনলাইট গার্ডেনে রাজশাহী বিভাগীয় বিএনপির বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মিনু এসব কথা বলেন।

রাজশাহী সিটি করপোরেশন নির্বাচনকে ঘিরে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি, নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে চলমান গণতান্ত্রিক আন্দোলনকে শক্তিশালী এবং সাংগঠনিক তৎপরতা বৃদ্ধির করার লক্ষে রাজশাহীতে এ বর্ধিত সভার আয়োজন করা হয়।

সভায় প্রধান বক্তার বক্তব্যে বিএনপির রাজশাহী বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালকুদার দুলু বলেন, খুলনা গাজীপুরের মতো রাজশাহীতেও বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থীকে ষড়যন্ত্র করে হারানো হলে রাজশাহী দখল করে প্রতিহত করা হবে। তিনি বলেন, আমাদের একটাই লক্ষ্য খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে আনতে হবে। ৩০ জুলাই রাজশাহী সিটি নির্বাচনে মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসনে বুলবুলকে বিজয়ী করে জেলের তালা ভেঙে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে আনতে চাই। এজন্য ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে মেয়র হিসেবে বুলবুলকে জয়ী করাতে হবে।

নির্বাচন কমিশনের প্রতি আস্থা নেই মন্তব্য করে রুহুল কুদ্দুস তালকদার দুলু বলেন, বাংলাদেশের একজন শিশুও বিশ্বাস করে যে এ নির্বাচন কমিশনের অধীনে কোনো নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না। আমরা দেশের মানুষকে জানাতে চাই যে, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি নির্বাচনে অবৈধভাবে ক্ষমতায় আসার পর আওয়ামী লীগ সব স্থানীয় সরকার নির্বাচনে চুরি করেছে। আমরা এই নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি কারণ হলো আওয়ামী লীগ সরকার কী তা দেশের মানুষ জানুক। দলীয় প্রধান বলেছিলেন মানুষের ভোট ও ভাতের অধিকার ফিরিয়ে দেবেন। কিন্তু কাজের বেলা করছেন তার বিপরীত। ভোট চুরির মাধ্যমে সিটি করপোরেশনগুলো তারা দখলে নিয়েছে। বাংলাদেশের মানুষ বুঝবে যে আওয়ামী লীগের অধীনে কোনো নির্বাচন সুষ্ঠু হতে পারে না, আগামী দিনেও হবে না।

দুলু বলেন, রাজশাহীর মাটি বিএনপির ঘাঁটি। আমরা জীবন দিয়ে ভোটকেন্দ্র রক্ষা করে বীরের বেশে বিএনপি প্রার্থী মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলকে বিজয়ী করে খালেদা জিয়াকে উপহার দেব।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন রাজশাহী মহানগর বিএনপির সভাপতি ও মেয়র প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল।

সভায় অন্যদের মধ্যে বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য আবু সাঈদ চাঁদ, রাজশাহী মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শফিকুল হক মিলন, জেলা বিএনপির সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন তপু, বগুড়া জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন চান, জিয়া পরিষদের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএর অধ্যাপক ড. মোহা. হাছানাত আলী, রাজশাহী জেলা মহিলা দলের সভাপতি রোখসানা বেগম টুকটুকিসহ রাজশাহী বিভাগের বিভিন্ন জেলা এবং উপজেলা থেকে আগত বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।