(বিএনপি কমিউনিকেশন) —  সাবেক মন্ত্রী ও বিএনপি’র জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীকে মিথ্যা মামলায় রোববার, অক্টোবর ২১,  চট্টগ্রাম জেলা আদালতে জামিনের জন্য হাজির হলে তাঁকে গ্রেফতার দেখিয়ে কারাগারে প্রেরণের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

রোববার, অক্টোবর ২১, এক বিবৃতিতে বিএনপি মহাসচিব বলেন, নব্যবাকশালী শাসনের অন্তরায় মনে করেই আমীর খসরুকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আসন্ন নির্বাচনকে ভোটারশূণ্য করার জন্য সরকার নানা ফন্দি এঁটে চলছে এবং এই জন্য দেশব্যাপী চলছে বিএনপি’র নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে গায়েবি মামলার হিড়িক ও নির্বিচারে গ্রেফতারের মহাতৎপরতা।

মহাসচিব এর বিবৃতির পূর্ণপাঠ নিচে দেয়া হলো  —  

দেশে এখন চলছে সরকারী প্রতিহিংসার প্রবল প্রতাপ। আর এই প্রতিহিংসার ছোবলে সরকার বিরোধী রাজনৈতিক দল, ভিন্নমত ও বিশ্বাসে মানুষদের ক্ষত-বিক্ষত করছে। আজ তারই একটি বহিঃপ্রকাশ ঘটলো বিএনপি’র জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য সবেক মন্ত্রী আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীকে আটকের মধ্য দিয়ে। নব্যবাকশালী শাসনের অন্তরায় মনে করেই আমীর খসরুকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আসন্ন নির্বাচনকে ভোটারশূণ্য করার জন্য সরকার নানা ফন্দি এঁটে চলছে এবং এই জন্য দেশব্যাপী চলছে বিএনপি’র নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে গায়েবি মামলার হিড়িক ও নির্বিচারে গ্রেফতারের মহাতৎপরতা।

ভোটার বিহীন একতরফা নির্বাচন করার জন্যই বর্তমান গণবিচ্ছিন্ন শাসকগোষ্ঠি জনমতকে তোয়াক্কা করছেনা। আওয়ামী সরকার জনগনকেই সবচেয়ে বড় শত্রু মনে করে। বর্তমান রাষ্ট্রের সকল অঙ্গকে করায়াত্ত করে সরকার নিজেকে অপ্রতিদ্বন্দ্বি ভাবছে। রাষ্ট্র পরিচালনার জন্য জনগণ যে আবশ্যিক নিয়ামক সে কথাটি সরকার ভুলে গেছে। ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের জন্য সরকর দেশে বিভেদ-বিভাজন, সহিংসতা-সংঘাত, কুৎসা ও বিদ্বেষ জিইয়ে রাখছে। অনাচারের ওপর নির্ভর করেই সরকার টিকে থাকতে চাচ্ছে কিন্তু তাতে সরকারের শেষ রক্ষা হবে না। মানুষের পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে। সরকারের সকল অপকর্মের জবাব দিতেই জনগন পথে-পথে ব্যারিকেড তৈরি করবে। বিএনপিসহ দেশবাসীকে ভয় দেখানোর অপকৌশল হিসেবেই আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীকে কারাগারে নেয়া হয়েছে। কিন্তু সরকারের সেই আশা পূর্ণ হবে না। প্রতিটি গ্রেফতারই বিএনপি’র নেতাকর্মীরা সরকারের বিরুদ্ধে সংগ্রামে আরও বেশি উদ্দীপ্ত ও অঙ্গিকারবদ্ধ হচ্ছে। স্বৈরাশাহীর কোন কারাগারই বিএনপি’র নেতাকর্মীদের আটকিয়ে রাখতে পারবে না। অবৈধ ক্ষমতাকে পাকাপোক্ত করার সরকারের প্রচেষ্টা ব্যর্থতায় পর্যবেসিত হবে।

আমি অবিলম্বে বিএনপি’র জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য জনাব আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করে তাঁর নির্শত মুক্তির জোর দাবী জানাচ্ছি।